শুক্রবার, ০৯ এপ্রিল ২০২১, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন

মাদক মামলায় আসামি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৪ মার্চ, ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় মাদক মামলায় আসামি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

বুধবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. জাহাঙ্গীর আলম নিজ বাস ভবনে এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

তিনি দাবি করেন, ফকিরমুড়া বিজিবির একটি মাদক মামলায় উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তাকে আসামি করা হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমি একজন ব্যবসায়ী। আখাউড়া সড়ক বাজারের তৃষা ফ্যাশন নামে আমার একটি তৈরি পোশাকের দোকান রয়েছে। ১৭ মার্চ বিকেলে আমার বন্ধু ইবনে মাসুদ খলিফাকে (লাক্সু) উত্তর ইউনিয়নের আনোয়ারপুর গ্রামে আমার লিচু বাগান দেখাতে নিয়ে যাই।

সেখান থেকে ফেরার পথে ফকিরমুড়া বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার মো. আলম ও জওয়ান মো. রফিক আমাদের গতিরোধ করে পরিচয় ও আসার উদ্দেশ্য জানতে চায়। নিজেদের পরিচয় দিয়ে বাগান দেখতে যাওয়ার কথা বলায় বিজিবি আমার ওই বাগানে নিয়ে যেতে বলেন। এ সময় আমি তাদেরকে বাগানে নিয়ে যাই। লিচু বাগানে বিজিবির সঙ্গে উভয়পক্ষের বাক-বিতণ্ডা হয়।

এ ঘটনার ৩দিন পর ওই ক্যাম্পের হাবিলদার তামিল হোসেন বাদী হয়ে আখাউড়া থানায় একটি মাদক মামলা করেন। মামলায় সীমান্ত এলাকা থেকে ২০০ বোতল ভারতীয় স্কফ জব্ধ করার কথা উল্লেখ করা হয়। ওই মামলায় বিজিবি আমাকে পলাতক আসামি করেছে, যা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, ষড়যন্ত্রমূলক, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

জাহাঙ্গীর আরও বলেন, আমি কোন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত নই। ব্যবসা করে স্বচ্ছভাবে জীবনযাপন করছি। বিজিবির সাথে বাক-বিতণ্ডার জেরে আক্রোশের বশে আমাকে মাদক মামলায় আসামি করা হয়েছে। আমি ন্যায়বিচার প্রার্থী।

এ বিষয়ে ২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল মো. ফেরদৌস কবির জানান, উপযুক্ত তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে জাহাঙ্গীরকে আসামি করা হয়েছে। জাহাঙ্গীর নির্দোষ হয়ে থাকলে আদালত থেকে মুক্ত হয়ে আসবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..

পেছনের বিজ্ঞাপন-